হাইলাকান্দি( আসাম, ভারত ) প্রতিনিধি :

হাইলাকান্দি জেলাধীন কাটলিছড়ার বিধায়কের বাসগৃহের পাশেই অবস্থিত কৃষ্ণপুর বাজার থেকে দক্ষিণ জষ্ণাবাদ সংযোগকারী সড়কের বেহাল দশা ও মুমূর্ষু রোগীদের ঠেলাগাড়ি সহ চেংদোলা করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে প্রতিবাদে মেতে উঠেছেন গ্রামের লোকজন সহ এনএসইউআই সংগঠনের সদস্যরা।গ্রামের জনগণের অভিযোগ স্বাধীনতা লাভের পরও তাঁরা মান্ধাতা আমলের ন‍্যায় জীবনযাপন করছেন। আধুনিক ভারতের স্বাদ তাঁরা পাচ্ছেন না। সরকার গ্রামোন্নয়নের নামে কোটি কোটি টাকা মন্ঞ্জুর করলেও তাঁদের গ্রামের রাস্তাঘাটের কোনও উন্নয়ন হচ্ছে না।সরকার সহ জনপ্রতিনিধিরা বিভিন্ন সভা সমিতিতে উন্নয়নের জয়গান পাইলেও বাস্তবের সঙ্গে এর কোন ও মিল নেই।যার প্রমাণ বিধায়ক সুজাম উদ্দিন লস্করের বাড়ির পাশে অবস্থিত কৃষ্ণপুর বাজার থেকে দক্ষিণ জষ্ণাবাদ সংযোগকারী গ্রাম‍্য রাস্তাটি।এলাকার ভূক্তভোগী নাগরিকরা রাস্তার উন্নয়নের দাবি জানিয়ে পঞ্চায়েত সভাপতি, এপি সদস্য, জেলা পরিষদ সদস্য,লালা ব্লক এপি সভাপতিসহ বিধায়কের নিকট বার বার গেলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি।বর্তমানে বর্ষার মরশুমে গ্রামীন ওই রাস্তাটি রীতিমতো বেহাল হয়ে পড়ায় চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে জনসাধারণ।গত বুধবার এলাকার নাগরিকদের নিয়ে এরই প্রতিবাদে সোচ্চার হন এনএসইউআইর সদস্যরা।সংগঠনের হাইলাকান্দি জেলা সম্পাদক মজমুল ইসলাম লস্করের নের্ত‍ৃত্বে গ্রামের জনসাধারণ রাস্তায় দাঁড়িয়ে সরকারের উন্নয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিভিন্ন স্লোগান দেন।তাঁরা ক্ষোভ ব‍্যক্ত করে বলেন, কাটলিছড়ার বিধায়ক সুজাম উদ্দিন লস্কর ও লালা ব্লকের আঞ্চলিক পঞ্চায়েত সভানেএীর হোম জিপিতে থাকা ক‍ৃষ্ণপুর বাজার থেকে মসদ আলী লস্করের বাড়ি হয়ে দক্ষিণ জষ্ণাবাদ সংযোগকারী রাস্তাটি বেহাল দর্শা হলেও কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না। অথচ বিধায়ক, এপি সভাপতি, পঞ্চায়েত প্রতিনিধিদের নিয়ে একসময় তাঁরা উন্নয়নের স্বপ্ন দেখে ছিলেন।তাই তাঁরা এদিন জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে কাঁপিয়ে তোলেন গোটা এলাকা।এলাকাবাসী সহ এনএসইউআইয়ের কর্মকর্তারা হুংকার দিয়ে বলেন,শীঘ্রই রাস্তার কাজ না হলে তাঁরা আগামী বিধানসভা নির্বাচনে ভোট বয়কটের ডাক দেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.