রবিউল ইসলাম, দৈনিক সময়ের বার্তা, রাজশাহী জেলা প্রতিনিধিঃ

বর্তমান করোনা ভাইরাসের বিষাদময় পরিস্থিতিতে বন্ধ রয়েছে দেশের প্রায় সকল প্রকার সরকারী, বে-সরকারী সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান। প্রতিনিয়ত ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী ও মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে পেশা টিকিয়ে রাখতে হিমশিম খাচ্ছে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সাউন্ড সিস্টেম ও ডেকোরেটর ব্যবসায়ীরা।দীর্ঘদিন ধরে করোনার কারণে সকল উৎসব-অনুষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।যার কারণে ডেকোরেটর ব্যবসায়ীরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। ঘর ভাড়া, গোডাউন ভাড়া, শ্রমিকদের খরচ এবং দৈনন্দিক সংসার খরচ চালানো অসম্ভব হয়ে পড়েছে।

১২ জুলাই (সোমবার) উপজেলার বিভিন্ন বাজার সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, অধিকাংশ দোকান খোলা থাকলেও নেই কাজের ব্যস্ততা। কাজ বিহীন সকাল আর সন্ধ্যা কাটে। দিন শেষে হিসাবের খাতা শূন্য। একদিকে বন্ধ রয়েছে আয়, অন্যদিকে বাড়ছে ব্যয়। শেষ হয়ে যাচ্ছে জমানো সঞ্চয়। ফলে সংকটময় দিন অতিবাহিত করছেন এ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত প্রায় শতাধিক পরিবার। উপজেলায় প্রায় শতাধিক সাউন্ড সিস্টেম ও ডেকোরেটর ব্যবসায়ীসহ শতাধিক শ্রমিক এ কাজের সাথে জড়িত রয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে রোজগার না থাকায় অসহায় অবস্থায় দিন যাপন করছেন তারা।

উপজেলার বাঘা বাজারের ডেকোরেটর ব্যবসায়ী সাজিদুল ডেকোরেটরের মালিক সাজিদুল ইসলাম , রফি মাইক ও সাউন্ড সিস্টেমের রফিকুল ইসলাম, তছিকুল সাউন্ড সিস্টেমের তছিকুল তারা সকলেই জানান, করোনাকালীন লকডাউনে আমাদের দোকান পুরোপুরিভাবে বন্ধ ছিলো। বর্তমানে দোকান খুললেও করোনার কারণে সকল অনুষ্ঠান বন্ধ রয়েছে।আমাদের পরিবার এই ব্যবসার উপর চলে। তাছাড়া আমাদের দোকানে ২ থেকে ৩ জন করে কর্মচারী আছে। তাদেরও বেতন দিতে পারছিনা। দোকান মালিক কর্মচারীসহ সকলে মিলে পরিবার চালাতে হিমশিম খাচ্ছি। সংকটময় অবস্থায় তাই সরকারের কাছে সহযোগিতা চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.