দৈনিক সময়ের বার্তা, সাকিব আহমেদ, হরিরামপুর প্রতিনিধি :

আজ ২১ জুলাই ২০২০ মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নে ১৫০জন অসহায়, দরিদ্র ও বন্যাকবলিত জনগনের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর ত্রান সামগ্রী বিতরন করা হয়।

ত্রান সামগ্রী বিতরন করেন মমতাজ বেগম এমপি ও মানিকগন্জ জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস।

ত্রান বিতরনকালে মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক এস এম ফেরদৌস জানান যে, মানিকগঞ্জ জেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে পর্যায়ক্রমে প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তা অব্যাহত থাকবে। তিনি আরো জানান যে, মানিকগঞ্জে যমুনা পয়েন্টে ৬১ সে.মি. বিপৎসীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এ পর্যন্ত পানিবন্দি আনুমানিক ৭০০০ পরিবার। বন্যাকবলিত জনগনের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান যে, জেলায় এ পর্যন্ত ১০৪ টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সরকারীভাবে ৩০০০ প্যাকেট শুকনো খাবার ও ৩০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ রয়েছে যার মধ্যে ১৩০০ প্যাকেট শুকনো খাবার ও ৩০ মেট্রিকটন চাল বিতরণ করা হয়েছে। অন্যান্য সকল ডিপার্টমেন্টকে এ নির্দেশনা দেয়া আছে যে একটি মানুষও যেন কষ্টে আছে এবং বা খেয়ে আছে এ খবর শোনার পর তাদের খাবারের ব্যবস্থা না করে নিজেদের খাবার যেন না খায়।

এ বিষয়ে মমতাজ বেগম এমপি জানান যে, প্রতিবছরের ন্যায় এ বছরো হরিরামপুর তথা সমগ্র জেলায় বন্যার্তদের সহায়তায় প্রধানমন্ত্রীর মানবিক সহায়তায় চাল, শুকনো খাবার, শিশু খাদ্য, গো-খাদ্য প্রদান অব্যাহত আছে।
তারই ধারাবাহিকতায় আজ কাঞ্চনপুর ইউনিয়নে চাল, শুকনো খাবার ও ৪টি পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ৩০০ (তিন হাজার) টাকার চেক ও ১ বান করে টিন প্রদান করা হয়। নদী ভাঙন রোধকল্পে জানতে চাইলে তিনি জানান যে, ইতিমধ্যে হরিরামপুরে ৯.৫ কি.মি. বাঁধ নির্মাণ করা হয়েছে এবং বিভিন্ন স্থানে ভাঙন রোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন অব্যাহত রয়েছে।

ত্রান বিতরনকালে উপস্থিত ছিলেন হরিরামপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ বিল্লাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলজার হোসেন বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান আব্দুর রব, হরিরামপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুঈদ চৌধুরী, কাঞ্চনপুর ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুস উদ্দিন গাজী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.