দৈনিক সময়ের বার্তা,
মোস্তাফিজুর রহমান,
জেলা প্রতিনিধি, ঝিনাইদহঃ-


ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলায় প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রতিরোধে সরকারের কোনো নির্দেশনাই মানছে না মার্কেটসহ হাট-বাজারগুলো।ঈদুল আযহা এখনো ৭ দিন বাকী,এর মধ্যে প্রতিদিন করোনাভাইরাসের রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। তবে তার মধ্যেও হরিনাকুন্ডুতে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা ত্রুেতা- বিক্রিতা কেউ মানছে না সামাজিক দূরত্ব। সামাজিক দূরত্ব না মানলে নেয়া হবে ব্যবস্থা স্থানীয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার এমন হুশিয়ারি দিলেও তা মানছে না কেউ, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দোকান খোলা রাখা।আর সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কঠোর নির্দেশনা থাকলেও সব ধরনের দোকানপাট খুলে ব্যবসা করছেন তারা। বিভিন্ন পণ্যের পসরা সাজিয়ে করছেন বেচাকেনা। এতে করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে হরিনাকুন্ডু উপজেলার সাধারণ মানুষ। উপজেলার হাট-বাজারে দোকানপাট খুলে জমজমাট ব্যবসা করছেন দোকান মালিকরা। ভোক্তা সাধারণ আর ব্যবসায়ীরা মানছেন না সামাজিক দূরত্ব। অনেকেই ব্যবহার করছেন না মাস্ক। নেই হাত ধোয়ার কোন ব্যবস্থা। শহরের রাস্তাঘাটে জনগণের উপস্থিতি নিতান্তই কম থাকলেও হাট-বাজারগুলোতে জনসমাগম রয়েছে আগের মতই স্বাভাবিক।হরিনাকুন্ডু বাজার এলাকায় হাজারো মানুষের সমাগম। দোকানের সামনে দাঁড়িয়ে আছে ক্রেতারা ক্রেতা আসলেই পণ্য খুলে পণ্য বিক্রি করছেন, তবে করোনা সর্তকতায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা নাফিস সুলতানা সামাজিক দূরুত্ব বজায় রাখতে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.