দৈনিক সময়ের বার্তা, মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা প্রতিনিধি,ঝিনাইদহঃ-

ঝিনাইদহে পারভিনা বেগম(৩৭) নামের এক মহিলার বিরুদ্ধে বিবাহের ফাঁদে ফেলে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পারভিনা বেগম ঝিনাইদহ সদরের মহারাজপুর ইউনিয়নের নৃসিংহপুর গ্রামের সিরাজ বিশ্বাসের মেয়ে। পারভিনার প্রথম বিয়ে হয়েছিল বিষয়খালী গ্রামের সিদ্দিকের সাথে ২ মেয়ে ১ ছেলে রেখে সড়ক দূর্ঘটনায় তার মৃত্যু হয় পরবর্তিতে পারভিনা খাতুন মাগুরার আড়পাড়া গ্রামের রহিম মোল্যার প্রবাসী পুত্র নজরুল ইসলামের সাথে বিবাহ করে। শরিয়ত মোতাবেক মহারাজপুর ইউনিয়নের কাজীর মাধ্যমে পরিবারের সকলের উপস্থিতে ফোনের মাধ্যমে বিবাহ সম্পন্ন হয়। নজরুল দীর্ঘদিন ধরে তার স্ত্রীসহ ৩ সন্তানকে সংসার চালানোর খরচ দিয়ে আসছিল। এ পর্যন্ত স্ত্রীকে ৪ লক্ষ ও শ্বাশুড়ীকে ১ লক্ষ টাকা বিকাশের মাধ্যমে দিয়ে থাকে প্রবাসী নজরুল। করোনার কারনে টাকা দিতে দেরি হওয়াই গত ৬ জুন’২০ তারিখে প্রবাসী নজরুলকে না জানিয়ে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বলরামপুর গ্রামের আলমগীরের সাথে বিবাহ করে থাকে। প্রবাসী নজরুল ইসলাম বলেন,আমি লক্ষ লক্ষ টাকা পাঠিয়ে আজ আমি সর্বশান্ত এ ধরনের মানুষের বিচার চাই ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.