মির্জা মাহামুদ হোসেন রন্টু নড়াইল

সরকার ঘোষিত ঈদ পরবর্তী ১৪ দিনের কঠোর লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে নড়াইলে কিছুটা ঢিলেঢালা ভাব লক্ষ্য করা গেছে। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ইজিবাইক মোটর সাইকেল সীমিত আকারে চলেছে। বিভিন্ন জেলা থেকে মানুষজনকে শহরে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। কিছু মুদি দোকান আংশিক খোলা রেখে বেচাকেনা করেছে।

শহরের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ন স্থানে এবং অন্য জেলায় ঢোকার মুখে পুলিশের চৌকি এবং বেশিরভাগ স্থানেই লোকেরা পুলিশের বাধার সম্মুখিন হয়েছে। পুলিশ কিছুটা তৎপরও রয়েছে লকডাউন মানার জন্য,কিন্তু লকডাউন মানতে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এর উপস্থিতি চোখে পড়েনি।

নড়াইল তথ্য অফিস সকাল থেকেই মাইকে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। লকডাউন মানতে পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় পিপিএমকে সকাল থেকেই মাঠে উপস্থিত থাকতে দেখা গেছে। জেলায় বর্তমানে ৯৮৬জন করোনা রোগী রয়েছেন,যার মধ্যে ৩০ জন হাসপাতালে এবং বাকি ৯৫৬ জন বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন।

গত ২৪ ঘন্টায় আক্রান্তের হার ৩১ শতাংশ আর সপ্তাহে ৩৪ শতাংশ।এ যাবত মারা গেছেন ৮৩ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.