সুমন ইসলাম বাবু,লালমনিরহাট

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ঈদ- উলআযহার দুইদিন পর থেকে সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের বিধি- নিষেধ লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় মানছেনা সাধারণ লোকজন।

গত দুইদিন ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পুলিশ, বিজিবি, আনসারসহ স্থানীয় প্রশাসন লকডাউন মানাতে জোড়ালো তৎপড়তা ও কঠোর অবস্থানে থাকলেও বাজারমুখী লোকজনদের কোনো ভাবেই নির্দেশনা মানাতে পারছেন না। করোনাভাইরাসের সংক্রমন ঠেকাতে জনসাধারণকে ঘরমুখি করতে ও সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার জন্য নিয়মিত ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা এবং লোকজনকে অযথা বাজারে ঘোরাফেরা না করতে টহল জোরদার করেছে প্রশাসন। প্রশাসন সর্বোচ্চ চেষ্টা অব্যাহত রাখলেও উৎসুক লোকজন নির্দেশনা না মেনে অকারণে ঘুরে বেড়াচ্ছে। প্রশাসনের নিকট নানা অজুহাত দেখাচ্ছে। লালমনিরহাট- বুড়িমারী স্থলবন্দর মহাসড়কে গ্রাম এলাকা থেকে চলছে যাত্রীবাহী নসিমন- করিমন ভ্যান, ইজিবাইক, মোটরসাইকেল, ব্যাটারিচালিত ভ্যান, রিক্সা। গ্রাম এলাকার স্থানীয় হাট- বাজার গুলোতে জন সাধারণের উপচে পড়া ভীড় সবচেয়ে বেশি দেখা গেছে। শহরের চেয়ে গ্রামের মানুষদের মাঝে করোনাভাইরাস সম্পর্কে চলা ফেরায় উদাসীনতা বিদ্যমান।


পাটগ্রামপূর্ব চৌরঙ্গী মোড় এলাকার সোহাগ হোসেন (২২) বলেন, ‘এমনি ঘুরছি। মাস্ক নেই। নিয়ে আসিনি। ’জগতবেড় ইউনিয়নের ভ্যান চালক আবু তালেব (৫০) বলেন, বাজারে লোক নিয়ে এসেছি। মাস্ক মুখে দিতে দিতে ক্লান্ত। তাই একটু নিচে দিয়ে মুক্ত বাতাস নিচ্ছি।’পাটগ্রাম পৌরসভা সোহাগপুর এলাকার হাফিজুল ইসলাম (৫৫) বলেন, ‘কোনো কাজ নাই। বাজারে খৈনি কিনতে এসেছি।’ব্যাটারি চালিত ভ্যান চালক মুন্সিরহাট এলাকার লিটন মিয়া (২৮) বলেন, ‘প্রশাসনের লোক জন আসতে দেয় না। গাড়িতে যাত্রী নিয়ে এসেছি। এখন চলে যাব।’


পাটগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুর রহমান বলেন, ‘সারা দিন শহর ও গ্রামেরহাট- বাজার, রাস্তা- ঘাট ছুটে চলেছি। জন সাধারণের অযথা ঘোরাফেরা রুখতে এবং সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নে সর্বাতত্ম চেষ্টা করছি। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছি। জরিমানা করছি। তার পরেও কোনো কাজ হচ্ছেনা। গত তিনদনে ৪৯ টি মামলায় ১২ হাজার ৬ শ টাকা (২৬জুলাই) দুপুর ২টা পর্যন্ত ১০ টা মামলায় প্রায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। অবিরাম পরিশ্রম করেও জন সাধারণকে বিধি- নিষেধ মানাতে পারছিনা। জেলা প্রশাসনকে জানিয়েছি। আগামীকাল বুধবার জেলা থেকে ম্যাজিস্ট্রেট পাঠানো হবে বলে জেনেছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.