বিশেষ প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে, ফরিদুল ইসলাম (৩২) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত‍্যা করা হয়েছে। সে উপজেলার বঙ্গসোনাহাট ইউনিয়নের বীর মুক্তিযোদ্ধা শামছুল আলমের পুত্র। এ ঘটনায় পুলিশ চার জনকে গ্রেফতার করেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (১৮ আগস্ট) সন্ধ‍্যায়, ফরিদুল সোনাহাট থেকে ভূরুঙ্গামারীর দিকে আসছিলো। এ সময় সোনাহাট ব্রীজের পূর্বপাড় এলাকার, কাদের আলীর ছেলে সাইফুর রহমান তার কয়েকজন সহযোগী নিয়ে, ফরিদুলের পথরোধ করে এবং তাকে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে তারা সাইফুরকে বেধরক মারপিট করে। উক্ত মারপিটের ফলে ফরিদুল জ্ঞান হারিয়ে ফেললে এলাকাবাসী ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশকে খবর দেয়।

পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ফরিদুলকে উদ্ধার করে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ‍্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরবর্তীতে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে, দায়িত্বরত চিকিৎসক ফরিদুলকে উন্নত চিকিৎসার জন‍্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে এবং সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার দিবাগত রাতে ফরিদুলের মৃত্যু হয়।

উক্ত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) সকালে, ভূরুঙ্গামারী থানা পুলিশ সাইফুর রহমান (৩৫), সোহেল মিয়া (২২), রয়েল ইসলাম (২০) ও সাহেরা বেগম (৫০) কে আটক করে।

থানা থেকে জানা যায়, গ্রেফতারকৃত আসামী সাইফুর রহমানের নামে ইতোমধ্যে একাধিক ফৌজদারি মামলা রয়েছে।

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহেদুল ইসলাম জানান, উক্ত হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় চারজনকে আটক করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.