নিজস্বপ্রতিনিধি, আসামঃ

সোমবার দুপুরে বদরপুরে বিএসএফ পুলিশের যৌথ অভিযানে ৫টি পিস্তলসহ ধরা পড়ে ছিল দুই যুবক। তাদেরই একজন রাতে পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারিয়েছে।

করিমগঞ্জের পুলিশ সুপার পদ্মনাভ বরুয়া ঘটনার সত‍্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি সাংবাদিকদের জানান,নিহত যুবকের নাম নুরুল ইসলাম(৩১) বাড়ি পাথারকান্দি থানাধীন ধলছড়া লামার গ্রামে। পুলিশ সুপার বরুয়া বলেন, সোমবার রাতে জিজ্ঞাসাবাদের সময় নুরুল ইসলাম জানায়, আরও দুটি পিস্তল অন‍্যত্র রেখে এসেছে। সেগুলি উদ্ধারের জন‍্য তাকে নিয়ে বদরপুরের নিরালা গ্রামের হেঁটে যাওয়ার সময় হঠাৎ সে জনৈক কনস্টেবলের বন্দুক কেড়ে নিয়ে গুলি ছুঁড়তে উদ‍্যত হয়। তখনই সঙ্গে থাকা অন‍্য পুলিশেরা আত্মরক্ষায় গুলি চালান।

পরে তারাই তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কত‍র্ব‍্যরত ডাক্তার মৃত বলে ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে ধৃত নাগা যুবক হেলৌ লিয়াং গিয়াস বতর্মানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। সিরাজ উদ্দিনের পুত্র নুরুল ইসলামের মৃত‍দেহ ময়নাতদন্তের জন‍্য করিমগঞ্জ সিভিল হাসপাতালে রাখা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.