মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি:

মানিকগঞ্জ পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের সুইপার কলোনির পাশের রবিদাস পাড়ায় এক হত দরিদ্র পরিবারে জন্ম নিয়েছিল মানসিক প্রতিবন্ধী সংগীতা রানী দাস (২২) । বিশেষ চাহিদা সম্পূর্ণ শিশুদের জন্য বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন বিশেষ গুরুত্ব এমন ব্যক্তিদের জন্য সরকারি ভাবে দেয়া হয় প্রতিবন্ধী ভাতা সহ নানা ধরনের সুযোগ সুভিধা। শৈশব পেড়িয়ে কৈশোরে পা রাখা মেয়েটি প্রতিবন্ধি ভাতার জন্য উপযুক্ত হওয়ার পড়েও বছরের পর বছর ধরে বঞ্চিত হয়ে আসছে তার প্রতিবন্ধী ভাতা থেকে।সংগীতার পিতা দ্বীলিপ রবিদাস (৪০) ও মাতা রেশমি রানী দাস সাত সদস্যের পরিবারে তিন মেয়ে ও দুই ছেলে নিয়ে একটি ১০ ফুট বাই ২০ ফুটের ভাঙ্গা দোচালা টিনের ঘরে খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছেন।

সংগীতার পিতা দ্বীলিপ রবিদাস বলেন, পোলাপ লইয়া খুব অসহায় অবস্থায় আছি, যহন যে কাম পাই হেই কামই করি।পোলাপানের মুখে দুইডা ভাত তুইলা দিতেও এহন আমার কষ্ট হয়।আমার এই প্রতিবন্ধী মেয়েটাকে নিয়ে বহু দিন ধরে খুব কষ্ট করছি।অনেক মানুষের কাছে গেছি আমার মেয়েডার একটা ভাতার কার্ড কইরা দেওনের লিগা কিন্তু কেউ কইরা দেয় নাই। কত জনরে কত বার আমার আর ওর মার ভোটার আইডির ফটোকপি আর আমাগো ছবি ওর ছবি নিয়া দিলাম সবাই কইল কইরা দিব কিন্তু কেউ কইরা দিলনা।

সংগীতার মা রেশমী রানীদাস বলেন, আমার স্বামীডা তেমন কোন কাজ কাজ করবার পারে না।করোনায় আমরা একবারে শেষ হইয়া গেছি পোলাপান গুলা লইয়া কিযে কষ্ট আমাগো বুঝাইবার পারুম না। আমি মাইনসের বাসায় বাসায় কাজ করি। সকাল ভোরে উইঠা চাইডা ভাত আলু সিদ্ধু কুনু রকম রাইন্ধা থুইয়া যাই পোলাপান সারাদিন তাই খায়। সংগীতারে নিয়া আমগো কষ্টর শেষ নাই। ওর ওষুধ পানি কিনা দিবার পারি না। ওরে ভালমন্দ কিছু খাওয়াইবার পরি না। ওর একটা কাডের জইন্যে কত মাইসের কাছে ঘুরলাম ভাই কেউ আইজ তুরি একটা কাড কইরা দিলনা আমার মাইয়াডারে। আপনারা আইছেন আমি খুব খুশি ওইছি। আপনেরা আমার মেয়াডারে অন্তত একটা প্রতিবন্ধি ভাতার কাড কইরা দিবেন।

সংবাদ সংগ্রহ কালে সংগীতার প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে তারা বলে মেয়েডারে নিয়া ওর বাপ মায় খুব কষ্ট করে। মেয়েটারে যদি কেউ একটু সহায়তা করত তাইলে ওর বাপ মায়ের জন্য খুব উপকার হইত।

সংগীতার পরিবার তাদের এই বিশেষ চাহিদা সম্পূর্ণ মেয়েটির জন্য একটি প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড সহ সমাজের বিত্তবান শ্রেণীর নিকট সংগীতার পাশে দাঁড়ানো মিনতি জানিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.